গ্রিন জোন বাঁকুড়াতেও মিলল প্রথম করোনা রোগী, করোনায় আক্রান্ত মুম্বই থেকে বনগাঁয় ফিরে আসা শ্রমিক, ফের আক্রান্তের হদিশ বর্ধমানে এবার দিল্লি থেকে আসা শিশুকন্যা

0
9

নির্ভীক কণ্ঠ নিউজ ব্যুরো    করোনার সংক্রমণ চলছে। আমফান ঝড়েও করোনার কোন ক্ষতি করতে পারেনি বলেই দাবি বিশেষজ্ঞদের। রাজ্যজুড়ে নানা স্থানে করোনা রোগীর দেখা যাচ্ছে ঝড়ের পরেও। তবে সুস্থ হওয়ার সংখ্যাও ক্রমশ বাড়ছে। তাই এক কথায় বলা চলে লড়াই চলছে। প্রথম থেকেই বাঁকুড়ার রং ছিল সবুজ । কিন্তু এবার সেই গ্রিন জোন্ও মিলল প্রথম করোনা রোগী । বাঁকুড়ায় মিলল করোনা আক্রান্তের খোঁজ। জানা গিয়েছে, ওই যুবকের বাড়ি বাঁকুড়ার পাত্রসায়ের। গত ১২ তারিখ ওই যুবক কলকাতার আমাহার্ট স্ট্রিটে আত্মীয়র বাড়ি থেকে বাঁকুড়া পাত্রসায়ের ফিরেন। ১৩ তারিখ বাঁকুড়া পাত্রসায়ের ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রে তাঁর লালারসের নমুনা সংগ্রহ করা হয়। এ দিন কলকাতা থেকে তাঁর রিপোর্ট আসে । সেই রিপোর্টে দেখা যায় ওই যুবক করোনা পজেটিভ ।

এদিকেএবার বর্ধমানে এক শিশুকন্যার দেহে করোনার সংক্রমণ মিললো। এক বছরের ওই শিশুকন্যা বাবা-মায়ের সঙ্গে দিল্লি থেকে ফিরেছিল। দিল্লি থেকে ফেরার পর তাদের নমুনা সংগ্রহ করা হয়।সেই নমুনা পরীক্ষাতেই ওই শিশুকন্যা করোনা পজিটিভ বলে রিপোর্ট এসেছে। ওই শিশুকন্যার মায়ের নমুনা রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। আক্রান্ত শিশুকন্যার বাবা বর্ধমানের উদয় পল্লী এলাকার বাসিন্দা। তিনি দিল্লির করালবাগে সোনা রুপোর কাজ করেন। অপরদিকে মহারাষ্ট্র থেকে বনগাঁয় ফিরে আসা এক শ্রমিক আক্রান্ত হলেন করোনাভাইরাসে। শুক্রবার স্বাস্থ্যদফতর ও পুরসভায় ওই শ্রমিকের লালারসের রিপোর্ট আসে। তাঁর করোনা পজিটিভ বেরিয়েছে। বনগাঁ পুরসভার প্রশাসক শঙ্কর আঢ্য বলেন, ”ওই যুবকের বাড়ি বনগাঁ শহরে। তিনি মহারাষ্ট্রে কাজ করতেন। রাজ্য সরকারের ব্যবস্থাপনায় বাড়ি ফিরেছিলেন। ১৫ মে আসানসোলে তাঁর লালারস পরীক্ষার জন্য সংগ্রহ করা হয়েছিল। শুক্রবার দুপুরে স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে আমাদের জানানো হয়েছে, রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে।” বনগাঁ বিএমওএইচ মৃগাঙ্ক সাহা রায় জানিয়েছে, করোনা আক্রান্ত ওই পরিযায়ী শ্রমিককে এ দিন নিউটাউনের কোভিড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here