অক্সিজেন প্রতারক বনগাঁ থেকে দিল্লি পুলিশের হাতে ধৃত 2 দুষ্কৃতী আবার শিয়ালদহে রেমডিসিভির নিয়ে 2 পাচারকারী

0

নির্ভীক কন্ঠ ওয়েব ডেস্ক ::: অক্সিজেন প্রতারক বনগাঁ থেকে দিল্লি পুলিশের হাতে ধৃত 2 দুষ্কৃতী আবার শিয়ালদহে রেমডিসিভির নিয়ে 2 পাচারকারী| রাজ্যে বসেই অক্সিজেন সরবরাহের নামে দিল্লিতে ফাঁদ পেতেছিল দুই যুবক। অবশ্য শেষরক্ষা হল না। দিল্লিতে হওয়া অক্সিজেন সরবরাহের প্রতারণার ঘটনায় দুই চাঁইকে বনগাঁ থেকে গ্রেফতার করল দিল্লি পুলিশের সাইবার ক্রাইম শাখার গোয়েন্দারা। দক্ষিণ দিল্লির আনন্দ বিহার এলাকার বাসিন্দা অলক নামের এক ব্যক্তির অভিযোগের ভিত্তিতে ঘটনার তদন্তে নামে দিল্লির সাইবার ক্রাইম বিভাগের গোয়েন্দারা। তদন্তে নেমে তাঁরা জানতে পারেন, এই প্রতারণার কারবার বনগাঁ থেকে চালানো হচ্ছে। ওয়েবসাইট ও সিম কার্ডের তথ্যের সূত্র ধরেই ওই দুই যুবকের নাম উঠে আসে। এরপর বনগাঁয় হানা দিয়ে ওই দুই অভিযুক্ত বনগাঁর বাসিন্দা সৌরভ সাহা ও গোপালনগর থানা এলাকার বাসিন্দা পিন্টু পাল নামে দুই যুবককে গ্রেফতার করে দিল্লির সাইবার ক্রাইমের অফিসাররা। আজ ধৃতকে বনগাঁ মহকুমা আদালতে তোলা ধৃতকে ট্রানজিট রিমান্ডে দিল্লি নিয়ে গিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করতে চায় পুলিশ। শিয়ালদা স্টেশন চত্বর জুড়ে রুটিন নজরদারি চালাচ্ছিল আরপিএফ। তখনই নয় নম্বর প্ল্যাটফর্মে সন্দেহজনক ভাবে ওই দুই ব্যক্তিকে ঘোরাঘুরি করতে দেখেন আধিকারিকরা। দেখে সন্দেহ হয় তাঁদের। তখনই ওই দুই ব্যক্তিকে আটকানো হয়। দুপুর একটা নাগাদ এই ঘটনা ঘটে। ওই দুই ব্যক্তিকে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করে আরপিএফ। এরপর তাদের কাছ থেকে উদ্ধার হয় রেমডিসিভিরের ১০টি ভায়াল, যার প্রতিটি বাংলাদেশে তৈরি। তাদের কাছে বৈধ কোনও কাগজপত্রও ছিল না এই ওষুধের। আরপিএফের ধারণা এই ওষুধ চড়া দামে পাচারের উদ্দেশ্যে ছিল ওই দুই ধৃত ব্যক্তি। ওই দুই ব্যক্তিকে জিআরপি-র হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। ঘটনার তদন্ত করা হচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here