নদীয়া জেলার দায়িত্বে মহুয়া মৈত্র, সবার নজর রানাঘাটের শংকর সিং এর সঙ্গে কি রকম সম্পর্ক হবে আগামী দিনে তা নিয়ে

0

নির্ভীক কণ্ঠ ডিজিটাল ডেস্ক ::: তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা ব্যানার্জি কর্তৃক রাজ্যজুড়ে দলে অদল-বদল ঘটানো হয়। সেই সূত্রে নদীয়া জেলার সভাপতি হয়েছেন সংসদ মহুয়া মৈত্র। নদীয়া জেলার রাজনৈতিক মহলে চাপা গুঞ্জন চলছে কৃষ্ণনগর সংসদীয় ক্ষেত্রে তৃণমূলের পুরনো নেতাদের সঙ্গে মতের অমিল দেখা গিয়েছিল মহুয়া মৈত্রের। এবার রানাঘাটের শংকর সিংয়ের সঙ্গে মহুয়া মৈত্রের সম্পর্কের অবনতি হবে না ঠিক থাকবে সেদিকেই নজর। লোকসভা ভোটে কৃষ্ণনগরে জয় পেলেও ধাক্কা খেতে হয়েছিল রানাঘাটে। ভোটের পরে দলের সংগঠনকে ভেঙে দুই ভাগ করা হয়। রানাঘাটের দায়িত্ব পান শঙ্কর সিংহ এবং কৃষ্ণনগরের দায়িত্ব পান মহুয়া মৈত্র। তবে বছর খানেক পরেই তাতে ফের বদল হয়েছে। মাত্র কয়েক দিন আগে দুই আলাদা সাংগঠনিক জেলাকে মিশিয়ে দিয়ে তৈরি হয়েছে নদিয়া জেলার সংগঠন। যার সভানেত্রী হয়েছেন মহুয়া। রানাঘাটের পদ হারিয়েছেন শঙ্কর সিংহ।তবে তাঁকে রাজ্যের সহ-সভাপতি পদে নিযুক্ত করা হয়েছে। এর আগে কৃষ্ণনগরের ক্ষেত্রে দেখা গিয়েছে, দলের একাধিক বর্ষীয়ান নেতা এবং বিধায়কের সঙ্গে সম্পর্কের অবনতি হয়েছে মহুয়ার। তা গড়িয়েছে রাজ্য কমিটি পর্যন্ত। রবিবারই কৃষ্ণনগরে জেলা পরিষদের প্রেক্ষাগৃহে জেলা তৃণমূলের বৈঠক ডাকা হয়েছিল। সেখানে শঙ্করবাবুও এসেছিলেন। তিনি বলছেন, ‘আমি এক জন রাজনৈতিক কর্মী। দল যখন যে দায়িত্ব দেবে তা পালন করব। মহুয়ার সঙ্গে সম্পর্ক খারাপ হতে যাবেই বা কেন। সবাই একসঙ্গেই কাজ করব।’ ওই বৈঠকে উজ্জ্বল বিশ্বাস, রিক্তা কুণ্ডু, গৌরীশঙ্কর দত্ত ও ছিলেন।এ বার পূর্ণাঙ্গ জেলার দায়িত্ব পাওয়ার পরে রানাঘাট এলাকার বর্ষীয়ান নেতাদের সঙ্গে তাঁর সম্পর্কের সমীকরণ কী দাঁড়াবে,  সেটাও দেখার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here